ইস্টবেঙ্গলের দলগঠনের ব্লু-প্রিন্ট তৈরি হয় জানুয়ারিতেই

খেলা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ লকডাউনে সব কিছু স্তব্ধ হলেও লাল-হলুদের দল গঠন থমকে যায়নি। ইতিমধ্যেই ভারতীয় ব্রিগেড তৈরি করার ব্যাপারে অনেকটাই এগিয়ে গেছে ইস্টবেঙ্গল।
নতুন মরশুমের দল গড়ার কাজে কর্তারা নেমে পড়েন ১৯ জানুয়ারি ডার্বির দু’দিন পরেই। ২১ জানুয়ারি বোর্ড মিটিং-এ কর্তাদের কোয়েস বলেছিল তারা আর ক্লাবের সঙ্গে থাকতে চায় না। ইস্টবেঙ্গল তরফে ফুটবলের রাইটস ফিরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করা হয়। কোয়েসের সম্মতি পেয়েই ইস্টবেঙ্গল কর্তারা গুরবিন্দর, ক্রোমা, জনি অ্যাকোস্টাকে দলে নেন।
ইস্টবেঙ্গল সুবিধা ছিল, শেয়ার মোহনবাগানের মতো ৮০-২০ ছিল না। ছিল ৬৭-৩৩। আর কোয়েসের সঙ্গে কেবলমাত্র ফুটবল টিম নিয়েই চুক্তি হয়েছিল।
আইএসএল-এর জন্য নতুন কোচের ভরসায় না থেকে ভারতীয়দের সঙ্গে কথা বলা শুরু করে ইস্টবেঙ্গল। বিদেশির বিষয় ধীরে চল নীতি নেয়। কারণ নতুন মরশুমে ফিফা বিদেশি ফুটবলারের সংখ্যা কমিয়েও দিতে পারে। আবার করোনার ফলে অনেক বিদেশি ফুটবলারের দর কমতে পারে। তাছাড়া, বিদেশি নির্বাচনে কোচের মতামতকেও প্রাধান্য দেওয়া হবে। যদিও ব্রাজিলিয় রাফায়েলের সঙ্গে কথা চালাচ্ছে লাল-হলুদ।
এখন প্রশ্ন হল, স্পনসর বা ইনভেস্টর ছাড়া কি বড় বাজেটের দল গড়া সম্ভব? সূত্রের খবর, রেড চিলির সঙ্গে কথা বার্তা যেমন চলছে। তেমনই ইস্টবেঙ্গল সমর্থক কিছু রাজনৈতিক নেতা সাহায্য করতে আগ্রহ দেখিয়েন যাঁদের ধরে ইস্টবেঙ্গল আইএসএল-এর সদর দড়জায় পৌঁছে যেতে পারে।
সব মিলিয়ে নতুন মরশুমে ভারতীয় ফুটবলে আবার লাল-হলুদ ঝলক দেখানোর অপেক্ষায় ইস্টবেঙ্গল।

Share this: